মঠবাড়িয়ায় বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর: ফেঁসে গেলেন আ.লীগ নেতা

ডেস্কঃ ভোলানিউজ.কম,

২১আগস্ট-২০১৭ইং সোমবার,

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর  এবং কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রুবেল আকনকে অপহরণের মামলায় ফেঁসে গেলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক টিকিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার।

তদন্ত শেষে প্রধান অভিযুক্ত ওই আওয়ামী লীগ নেতাসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে গত মঙ্গলবার চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ।

অন্যান্য আসামিরা হলেন- ইউপি সদস্য জসিম মৃধা, ছাত্রলীগ নেতা এনামুর রহমান মনির, সাবেক ইউপি সদস্য বাবুল মিয়া, যুবলীগ কর্মী তকদির মাতুব্বর, কবির হোসেন, মারুফ হোসেন, এনায়েত হোসেন, জুয়েল ও মোস্তফা।

অপরদিকে স্থানীয় হাসান মিয়া, সোহাগ মিয়া ও রাজীবের অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় চার্জশিট থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাইশকুড়া বাজারে একতা সংঘ ক্লাবের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রুবেল আকন ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রিপন জমাদ্দারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ওই বিরোধের জের ধরে গত বছরের ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ২০-২৫ জনের একটি দল বাইশকুড়া বাজারে এসে একতা সংঘ ক্লাবে সাঁটানো বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমানের ছবিসহ অফিসটি ভাঙচুর করে। পরে আসামিরা রুবেলকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেলে পুলিশ ওই রাতেই তাকে উদ্ধার করে এবং ভাঙচুরকৃত ছবিগুলো জব্দ করে।

এ ঘটনায় রুবেলের পিতা পান্না আকন বাদী হয়ে ঘটনার দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপনকে প্রধান আসামি করে ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার বলেন, আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য প্রতিপক্ষরা ওই মামলায় আসামি করেছে।