ভোলা লালমোহনের সুমা ঢাকার রমজান আলীর গৃহকর্মী ‘নিখোঁজ ৪মাস’ আজও সন্ধান মেলেনি!

হাসান পিন্টু লালমোহন থেকে,

ভোলানিউজ.কম,

১১আগস্ট-২০১৭ইং শুক্রবার,

অনেক কষ্ট সংসার চালাতে, গরিব অসহায় মানুষ। বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত, সঠিক চিকিৎসা চালাতে পারি না।ছেলে/মেয়েদেরকে পড়া-লেখা করাতে পারি না খুব কষ্ট হয়!!!

ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলার মেয়ে সুমা। ঢাকায় বাসার কাজ করতে গিয়ে নিখোঁজ। আজ প্রায় ৪মাস নিখোঁজের অতিবাহিত হলেও সন্ধান মেলেনি সুমার।সুমা আক্তার (১৫) গত ১ বছর আগে রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানাধীন জুরাইন এলাকার দক্ষিন লেন পাড়ার নতুন রাস্তার বাসিন্দা রমজান আলীর বাসায় কাজ করতে যায়। গত ৩/৪ মাস থেকে সুরমা নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা যায়। সুমা ভোলার লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়নের বালরচর এলাকার জেবল হকের মেয়ে।

সুমার বাবা মোঃ জেবল হক অভিযোগ করে বলেন, আমাদের টানা পোড়নের সংসার। সংসার চালাতে প্রতিনিয়ত খেতে হয় হিমশিম তাই মেয়েকে অন্যর বাসায় কাজ করতে দেই। আমার বড় মেয়ে সেখানের আরেক মালিক চাঁন মিয়ার বাসায় কাজ করতো। সেই বাসায় ভাড়া থাকে রমজান আলীর বড় বোন নুর জাহান। নুর জাহানের মাধ্যমেই রমজান আলী সুমাকে বাসায় কাজ করার জন্য নেন। কিন্তু আমি ৩/৪ মাস আগে মেয়েকে দেখার জন্য রমজান আলীর বাসায় যাই। সেখানে গিয়ে আমার মেয়েকে না পেয়ে রমজান আলীকে জিজ্ঞাস করলে তিনি জানান সুমা হারিয়ে গেছে। তিনি সুমা নিখোঁজ হবার ব্যাপারে নাকি যাত্রবাড়ী থানায় জিডি করেছেন। আমাকে সে নানাভাবে হুমকি ধামকি প্রদান করছেন।

এব্যাপারে রমজান আলী বলেন, সুমার বড় দুলাভাই পরার্মশ দিয়ে এসব কাজ করছে। তবুও আমি যাত্রাবাড়ী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছি।