ভোলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম, ২০১৭ বিষয়ক মতবিনিময় সভা

সোহেল মাহমুদ,

বিশেষ প্রতিনিধি,

ভোলানিউজ.কম,

১আগস্ট-২০১৭ইং মঙ্গলবার,
আজ ১ আগষ্ট’১৭ ইং তারিখ সকাল ১০:০০ ঘটিকায় ভোলা জেলা নির্বাচন অফিসের সম্মেলন কক্ষে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম,২০১৭ বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের সদস্য কোস্ট ট্রাস্ট ও ভোলা নির্বাচন অফিস যৌথভাবে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।২৫ জুলাই হতে ৯ আগষ্ট’১৭ ইং পর্যন্ত, যাদের জন্ম ১ জানুয়ারি ২০০০ ইং বা তার পুর্বে যাহারা ভোটার হওয়ার উপযুক্ত তাদের তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছে। তথ্য সংগ্রহকারীরা বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করছে। শুভেচ্ছা বক্তব্যে কোস্ট ট্রাস্টের সমন্বয়কারী মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, কোস্ট ট্রাস্ট জেলার প্রতিটি উপজেলায় তথ্য সংগ্রহকারীর তালিকা ও মোবাইল নাম্বার সমিতির সুবিধাভোগী পর্যায়ে প্রচারনার কাজ চলছে। কমিউনিটি রেডিও মেঘনার বিশেষ বুলেটিনে ভোটার তালিকা হালনাগাদের প্রচারনা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জেলার সকল উপজেলায় নির্বাচন কমিশনের ভোটার তালিকা হালনাগাদের পোষ্টার ও লিফলেট বিতরন চলবে। ভোলা সদর উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান খান বলেন, জেলায় মোট ৫৯৯ জন তথ্য সংগ্রহকারী ও ১২২ জন সুপারভাইজারের মাধ্যমে হালনাগাদের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জাতীয়ভাবে এই বৎসর হালনাগাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয় ৩.৫%। ভোলা জেলায় ২৫ জুলাই হতে অদ্যবধি পুরুষ ৪৫১৭ ও মহিলা ৩৯২৩ সহ সর্বমোট ৮৪৪০ জন রেজিষ্টারে নাম অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। এছাড়াও পুরুষ ১০১১ ও মহিলা ১০৩৯ জন সহ মোট ২০৫০ জন মৃত ব্যক্তিদের ভোটার তালিকা থেকে নাম কর্তনের ফরম পুরন করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, পুর্বের তালিকা অনুযায়ী জেলায় মোট ১২ লক্ষ ৪৪ হাজার ২শত ৩৮ জন ভোটার রয়েছেন। ভোলা মুসলিম ইনষ্টিটিউটের সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, ভোটার তালিকায় অন্তর্ভূক্তের জন্য জন্ম নিবন্ধনের বাধ্যবাদকতা থাকায় ইউনিয়ন পরিষদে নিবন্ধনের জন্য ভীড় জমছে, সেই সুবাধে কিছু অসাধুলোক মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে নিবন্ধন দিচ্ছে। নির্বাচন কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষন করে সরকার কর্তৃক নিবন্ধনের ফি নির্ধারণের আহ্বান জানান। সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী তুহিন ও নেয়ামত উল্ল্যাহর প্রশ্নের জবাবে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বলেন, আমরা প্রত্যেক তথ্য সংগ্রহারীকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হালনাগাদের জন্য তাদের নাম মোবাইল নাম্বার এবং প্রত্যেক ঘরের দরজায় পারমানেন্ট কলম দ্বারা একটি বিশেষ চিহ্ন দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছি যাতে করে মনিটরিং করা যায়। তথ্য সংগ্রকারীদের কাজ তদারকির জন্য মাঠ পর্যায়ে সুপারভাইজার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এবং জেলা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাগনও তাদের কার্যক্রম মনিটরিং করছে এ পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহকারীদের কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়নি ও কোন অভিযোগও পাওয়া যায়নি। ভোলা প্রেস ক্লাব সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, হালনাগাদের কাজ শুধুমাত্র কোস্ট ট্রাস্ট বা নির্বাচন কমিশনের একমাত্র দায়িত্ব নয় সচেতন নাগরিক হিসাবে সকলেরই দায়িত্ব নিজ নিজ উদ্যেগে হালনাগাদের কার্যক্রমে অংশ নেওয়া। বিনিময় সভায় আরও যারা বক্তব্য রাখেন লালমোহন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আমির খসরু গাজী, ভোলার প্রথম আলোর প্রতিনিধি মোঃ নেয়ামত উল্ল্যাহ, ইত্তেফাকের আহাদ চৌধুরী তুহিন, জনকন্ঠের হাসিবুর রহমান, যুগান্তরের অমিতাভ অপু, এনটিভি-র মোঃ আফজাল হোসেন। সভায় সাংবাদিকবৃন্দ, মুসলিম ইনস্টিটিউট এর সম্পাদক, নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ, বাসার নির্বাহী পরিচালক নিগার নাহার রিংকু,কোস্ট ট্রাস্টের ভোলার আঞ্চলিক টিম লিডার রাশিদা বেগম ও লালমোহন উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।