ভোলায় নার্সকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

চরফ্যাশন প্রতিনিধি,

ভোলানিউজ.কম,

২৪-৪-২০১৭ইং সোমবার,

ভোলা চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সের প্রধান সহকারী কাজী জাফর উল্যাহর বিরুদ্ধে সিনিয়র স্টাফ নার্সকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। ওই নার্স ভোলা সিভিল সার্জন বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। বিষয়টি নিয়ে ৩ সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন সিভিল সার্জন। ওই কমিটিকে আগামী ৩দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বোরাহানউদ্দিন উপজেলার ছোট মানিকা গ্রামের কাজী জাফর চরফ্যাশন হাসপাতালে প্রায় ২২ বছর যাবৎ প্রধান সহকারী (নিজ বেতনে) পদে দায়িত্ব পালন করে আসছে। বিভিন্ন সময় সে নারী কেলেংকারীর ঘটনার সাথে জড়িত বলে এলাকায় ব্যাপক প্রচার রয়েছে।
হাসপাতালে কর্মরত জনৈক সিনিয়র স্টাফ নার্সকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দিতো জাফর। তাতে সে রাজি হওয়ায় তার সাথে অফিসিয়াল কাজ নিয়ে জামেলা করে আসছে। তার কথা না শুনলে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হবে বলে হুমকি দিতো জাফর।

সর্বশেষ কাজী জাফর উল্যাহ ওই নার্সকে তার অফিস কক্ষে কাজের কথা বলে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানী করে। স্টাফ নার্স অবশেষে জাফর উল্যাহর বিরুদ্ধে ভোলা সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
ভোলার সিভিল সার্জন ডা.রথীন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, আমি বিষয়টি চরফ্যাশন স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে নির্দেশ প্রদান করেছি এবং উক্ত ঘটনায় হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শুভন বশাককে প্রধান করে ৩সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমানিত হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরিশাল বিভাগীয় পরিচালক ডা.মাহবুবর রহমান সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। ভোলার সিভিল সার্জন দেখবে।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সিরাজুল ইসলাম জানান, আমি সিভিল সার্জনের নির্দেশ মোতাবেক ৩সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। রিপোর্ট আসলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
অভিযুক্ত কাজী জাফর উল্যাহ অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে সে অভিযোগ করা হয়েছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা। মূলত আমার মান ক্ষুন্ন করার জন্য এ অভিযোগ করা হয়েছে।